Breaking News

গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হলেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক গৃহবধূ

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন: দুই কন্যা সন্তানকে রেখে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হলো মানসিক ভারসাম্যহীন এক গৃহবধূ। ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে গঙ্গারামপুরের সাহাপাড়া এলাকায়। দুই শিশুর পাশে দাঁড়ালো বিধায়ক গৌতম দাস। 
সোমবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে গঙ্গারামপুর পৌরসভার ১১নং ওয়ার্ডের সাহাপাড়া এলাকায়।পুলিশি সূত্রে খবর মৃতা ওই গৃহবধূর নাম পিঙ্কি রবি দাস (২৫) বাড়ি ওই এলাকাতেই। জানা গেছে গঙ্গারামপুর পৌরসভার সাহাপাড়া এলাকার বাসিন্দা বিক্রম রবি দাস তার স্ত্রী পিঙ্কি রবি দাস তাদের দুই কন্যা সন্তান রিঙ্কি ও প্রিয়া। পরিবার সূত্রে খবর গত ৪ বছর আগে মৃত্যু হয়েছে স্বামী বিক্রম রবি দাসের।  তারপর থেকেই মানসিক ভারসাম্য হীন হয়ে পরে স্ত্রী পিঙ্কি। স্বামী মারা যাবার পরে প্রতিবেশীদের কাছে থেকে সাহায্য নিয়ে কোনরকমে দুই মেয়ে কে নিয়ে দিনযাপন করছিলেন তিনি। এরমাঝেই প্রতিদিনের মতো রবিবার রাতেও খাবার খেয়ে দুই মেয়েকে নিয়ে শুয়ে পড়েন তিনি। এরপরে সোমবার সকালে তার বড় মেয়ে তার মাকে দেখতে না প্রতিবেশীদের কাছে তার মায়ের খোঁজ করতে থাকে। প্রতিবেশীরা পাশের ঘরে দেখতে পায় ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ। এরপরেই খবর দেওয়া হয় গঙ্গারামপুর থানায়। পুলিশ পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। যদিও এলাকাবাসীদের দাবি দীর্ঘিদিন ধরেই পিঙ্কি দেবী মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন তার ফলেই এই আত্মহত্যা। সোমবার এমন ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে আসে পরিবার সহ এলাকা জুড়ে। তার দুই মেয়ে নিয়ে দুশ্চিন্তায় পরে যায় প্রতিবেশীরা। এদিন ঘটনার খবর পেয়ে ওই দুই শিশুর সাথে দেখা করতে যান গঙ্গারামপুর বিধাসভার বিধায়ক তথা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি গৌতম দাস। তিনি ওই দুই শিশুকে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দেন ।

No comments