Breaking News

গৃহবধূর ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল খণ্ডঘোষ ব্লকের সুলতানপুর গ্রামে

কল্যাণ দত্ত, নিউজ অনলাইন: এক গৃহবধূর ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার করাকে  কেন্দ্র করে ব্যাপক  চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল খণ্ডঘোষ ব্লকের  সুলতানপুর গ্রামে। স্থানীয়  এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় ওই গৃহবধূর বাবার  বাড়ি খণ্ডঘোষ ব্লকের  গুইড় গ্রামে।  মৃত  গৃহবধূর নাম কানন বাগদী।   আনুমানিক বয়স  ৩৩ বছর।  গৃহবধুর বাবার  বাড়ির সূত্রে জানা যায় তাদের মেয়ে কানন বাগদীর সাথে  সুলতানপুর গ্রামের শ্রীমন্ত বাগদীর   ১৩ বছর আগে  বিবাহ হয়।  এবং তাদের  অভিযোগ  জামাই অর্থাৎ শ্রীমন্ত বাগদী বিভিন্ন রকম অসৎ এবং অন্যায় মূলক কাজে লিপ্ত  থাকত। সেই সব ব্যাপারে  তাদের মেয়ে বাধা দিতে গেলে মেয়ে কানন বাগদীর  উপর অত্যাচার করতো  স্বামী শ্রীমন্ত বাগদী।   এইসব অন্যায় মূলক কাজে প্রতিবাদ করার জন্যই আমাদের মেয়েকে  খুন গলার নলি কেটে খুন করা  হয়েছে।   এলাকাবাসীদের সূত্রে জানা যায় আজকে সকালে গৃহবধূর বসতবাড়ি থেকে বেশ কিছুটা দূরে একটি জলা  জমিতে একটি মৃতদেহ ভাসতে দেখা যায় তারপরে এলাকাবাসীরা ছুটে যান গিয়ে দেখেন কানন বাগদির অর্থাৎ মৃত গৃহবধূর দেহ পড়ে আছে।   খন্ডঘোষ  থানার  পুলিশকে খবর দেওয়া  হলে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসেন খন্ডঘোষ  থানায় এবং পরে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়।  গৃহবধূর বাবার  বাড়ির লোকজনের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত স্বামী অর্থাৎ শ্রীমন্ত বাগদী কে খণ্ডঘোষ থানার পুলিশ আটক করে।  ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশবাহিনী সহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবং সদর সাউথ এসডিপিও, C.I(c) সদর  এলাকায় ছুটে  যান।  এবং গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন স্থানীয় খণ্ডঘোষ থানার  পুলিশ।

No comments