Breaking News

ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে অভাবের তাড়নায় চায়ের দোকান খুলে বসলো এক যুবক

 অতনু ঘোষ ও মৃনাল কান্তি মণ্ডল, পূর্ব বর্ধমান* : একজন সাধারণ ঘরের চা বিক্রেতার অদম্য ইচ্ছাশক্তি  ও তার  নিজের মেধার জোরে আজ  ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন | 
আজ  যার কথা বলব সেও একজন চা বিক্রেতা |  কিন্তু এমনটা হওয়ার কথা ছিল না তার | কী সেই ঘটনা?‌  ঘটনাস্থল  মোদির রাজ্য গুজরাট নয়, এই বাংলাতে |চাকরি জীবনে মেধা দিয়েও উপযুক্ত দাম না পেয়ে কার্যত হতাশ হয়ে শেষে  সংসারের বোঝা কাঁধে নিয়ে চায়ের দোকান খুলে বসল ইঞ্জিনিয়ার সঞ্জু কুণ্ডু |
ছোটবেলা থেকে অত্যন্ত মেধাবী  সঞ্জু কুণ্ডু  ২০১৯ সালে জলপাইগুরী ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ  থেকে পাশ করে | পড়াশোনা করার জন‍্য সেই সময় একটি ব‍্যাঙ্ক থেকে বেশ কিছু টাকা এডুকেশন লোন নেয় |
 তৎকালিন ব‍্যাঙ্ক ম‍্যানেজার বলেছিলেন, পড়ার শেষ করে চাকরীর বেতন থেকে লোনের কিস্তি নেওয়া হবে | পরবর্তী সময়ে  সঞ্জু ইঞ্জিনীয়ারিং পাশ করে | কিন্তু হাজার চেষ্টা করেও একটি চাকরি জোটাতে পারেনি | এদিকে ঋণের বোঝা ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকায়  ব‍্যাঙ্ক লোনের কিস্তি দিতে বলে |   কোর্টের দারস্থ হবার  ভয় দেখালে,বহু কষ্টে প্রথম কিস্তি দেওয়ার পর সঞ্জুর বাবা নবকুমার বাবুর স্ট্রোক হয় | বর্তমানে তিনি ফুটপাতের সবজী বিক্রি করেন  |
এক দিকে বাবার চিকিৎসা অপর দিকে ব‍্যাঙ্কের কিস্তি নিরুপায় হয়ে নিজের বাড়ির সামনে মেমারী কাটোয়া রোডের ধারে একটি চায়ের দোকান  খুলে বসে সঞ্জু | চায়ের দোকান থেকে সারা মাসে যা সাশ্রয় হয় তার থেকে ব্যাংকের ২৩০০টাকা  কিস্তি দেবার পর, বাবার ওষুধ কিনতে ফুরিয়ে যায় বাকি টাকা |
 এলাকার মানুষের কথায়, সরকার যদি সঞ্জুর মত মেধাবীর মেধা বিচার করে একটু সদয় হয় | তবে আগামী দিনে এই সঞ্জুরাই  যে দেশের সম্পদ হবে না, তা কে বলতে পারে!!!!

No comments