Breaking News

দক্ষিণ দিনাজপুরে প্রত্যেকদিন যেভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে, চিন্তার ভাঁজ পড়েছে প্রশাসনের


শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন:  ক্রমেই দক্ষিন দিনাজপুর জেলায় করোনার থাবা দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। আজ  দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় নতুন করে সংক্রমিত হলেন ৪০ জন।  এর মধ্যে জেলা সদর শহর  বালুরঘাটেই সংক্রমিত হয়েছেন  পাচজন।  এছাড়াও গংগারামপুরে সাতজন, কুমারগঞ্জে ১৪ জন, কুশমন্ডিতে একজন, হরিরামপুরে একজন,তপনে একজন ও বুনিয়াদপুরে ১১ জন  সংক্রমিত হয়েছেন।  গতকাল  রাতে এই রিপোর্ট এসেছে মালদা মেডিক্যাল কলেজের পরীক্ষাগার থেকে।  আক্রান্ত দের  গত ১০ ও ১১ জুলাই সোয়াব সংগ্রহ করে, পরীক্ষার জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছিল। তার মধ্যে থেকেই এদিন এই ৪০ জনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এদিকে ক্রমশই করোনা সক্রমন বালুরঘাট শহরে থাবা বসানোয় কাল থেকে বালুরঘাট শহরের প্রধান বাজার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। যদি কোন ব্যাক্তির খাদ্য সামগ্রী বা নিত্য বস্ত্যুর প্রয়োজন হয় তবে তা বালুরঘাট ব্যবসায়ী সমিতির অফিস ঘরে জানালে তা হোম ডেলিভ্যারি করবার ব্যবস্থ্যা করা হয়েছে বলে ব্যবসায়ী সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।  এদিকে এই ৪০ জন ছাড়াও বালুরঘাট ও গংগারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ট্রু নাট টেস্টের মধ্যে ২ জনের পজিটিভ পাওয়া গেলেও যে হেতু তা স্বাস্থ বিধি অনুযায়ী আগে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের ওয়েব সাইটে নথিভুক্ত করন না হওয়া অবদ্ধি জেলা স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষে   জানানো সম্ভবপর নয়। তাই ওই দুই জন সক্রমিতকে আজকের তালিকায় রাখা হয়নি। এই দুই জনের মধ্যে সুত্রের খবর বালুরঘাট জেলা হাসপাতালের নামকরা একজন চিকিৎসক রয়েছেন। 
অপরদিকে বালুরঘাটের বুড়িকালী রোড, নামাবংগী, হোসেনপুর ড্রাইভার কলোনি, ছিন্নমস্তা কলোনি, চকভবানিতে একজন করে   কোভীড পজিটিভ হয়েছেন।কুমার গঞ্জের চকরামরাই গোপালগঞ্জ, গ্রামীন হাসপাতালে, নেত্র ডাংগা,কেশুরাইল, দামোদরপুর,বরমে একজন করে,বালুপারায় ৪ ও শ্যামনগরে দুজন সংক্রমিত হয়েছেন।  বুনিয়াদপুরের ১১ জন( শ্যামাপল্লী,জোর দিঘি, চেরাগিপাড়া বরাইল, বদল পুর, আদালত,শের পুর, গঙ্গারামপুরে সাত জন(নারই, ধলদিঘি,কাদিহাট, জাহাঙ্গীর পুর, দুর্গাবাড়ি পারা),  হরিরামপুরে একজন, কুশমন্ডিতে একজন এবং তপনে একজনজন  সংক্রমিত হয়েছেন। এদিনের আক্রান্তদের অধিকাংশেরই কিন্ত ভ্রমনের ইতিহাস নেই বলে জানা গেছে। নতুন সংক্রমিতদের মধ্যে সরকারি কর্মী, নেতা, আদালত কর্মী, বাসকর্মী রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি ভাবে সংক্রমিত দের অধিকাংশই উপসর্গহীন বলেও জানা গেছে। এদিনের ৪০ জন নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪০০জন। তবে জেলা ও রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের হিসেবে সংখ্যাটা ৪০৯ জন। কারন দক্ষিন দিনাজপুর  জেলার বাসিন্দা অথচ জেলার  বাইরে পরীক্ষা করিয়ে পজিটিভ হয়েছেন, এমন ৯ জনকে তালিকায় নেওয়া হয়েছে।  এর আগে জেলায় মোট আক্রান্তদের মধ্যে ২৬০ জনই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।  নতুন আক্রান্তদের  সেফ হাউজে বা কোভিড হাসপাতালে  চিকিৎসার জন্যে আনবার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে।

No comments