Breaking News

কেন্দ্র সরকার যে চাল পাঠিয়েছে সেটা মানুষের পক্ষে খাওয়া সম্ভব নয়, এমনটাই অভিযোগ করলেন বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি

জয় জীবন গোস্বামী, নিউজ অনলাইন, বাঁকুড়া : করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য দেশজুড়ে চলছে লকডাউন । আর এইরকম কঠিন পরিস্থিতিতে সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়তে হচ্ছে দিন আনা দিন খাওয়া সাধারণ মানুষগুলোকে । সেই সমস্ত সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে কেন্দ্র সরকার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন । কেন্দ্র সরকারের ঘোষণা মতো বাঁকুড়া জেলায় এসে পৌঁছেছে বিনামূল্যে জনকল্যান যোজনার চাল । 

তবে সেই চাল অত্যন্ত নিম্নমানের ও অখাদ্য সাংবাদিক সম্মেলন করে এমনটাই অভিযোগ করলেন বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শুভাশিস বটব্যাল । তিনি বলেন , কেন্দ্রীয় সরকার এফ সি আই এর মাধ্যমে যে চালটা পাঠাচ্ছেন সে চালটা অখাদ্য চাল এবং মুখ্যমন্ত্রী যে চালটা পাঠিয়েছেন তা বেস্ট কোয়ালিটি । পাচ বছরের ছয় বছরের পুরাতন চালগুলো কেন্দ্রিয় সরকার পাঠিয়েছে এই চালগুলো কি বিলি করা যায় । এই চাল গুলো যদি বিলি করা যায় তাহলে মানুষের রোগ হতে পারে । আর এটা নিয়ে বিজেপি রাজনীতি করছে । ওদের লজ্জা করা উচিত এরকম কঠিন পরিস্থিতিতে ওরা রাজনীতি করছে । আমরা ডিলারদে অনুরোদ করেছি আপনারা এই চাল তুলবেন নি । যদি এই চাল বিলি করা হয় তাহলে আপনারা হেনস্তা হবেন । কেন্দ্র সরকারের উচিত অবিলম্বে এই চাল পরীক্ষা করে এবং পরিবর্তন করে বাঁকুড়া বাসির জন্য ভালো চাল দেওয়া। 

তবে তৃণমূলের তোলা এই অভিযোগকে কটাক্ষ করেছেন বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ ডাক্তার সুভাষ সরকার তিনি বলেন , যদি এই ধরনের কোন অভিযোগ থাকে তাহলে বস্তার ব্যাচ নাম্বার দিয়ে এবং বস্তা টিকে না খুলে স্যাম্পল চেক করে অভিযোগ করুক তাহলে অবশ্যই ব্যবস্থা করা হবে । তবে তৃণমূল চাল চুরি চাল পাল্টানো এসব বন্ধ করুক । প্রধানমন্ত্রীর জনকল্যান যোজনার চাল দিতে বাংলার মানুষকে এক মাস দেরি করল এর জন্য দায়ী রাজ্য সরকার এবং তৃণমূলের নেতারা ।

No comments