Breaking News

করোনার জের, উদয়নারায়ণপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতাল ১৪ দিনের জন্য সিল করে দেওয়া হল, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নাকাল হবার সম্ভাবনা

 
কল্যাণ অধিকারী,নিউজ অনলাইন, হাওড়া: 
১৪দিনের জন্য পুরোপুরি সিল করে দেওয়া হল উদয়নারায়ণপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতাল। উদয়নারায়ণপুর বিধানসভা কেন্দ্রে ১৬টি গ্রাম পঞ্চায়েত বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষদের স্বাস্থ্য অবনতি হলে ছুটতে হবে ১৯কিমি দূরের অমরাগড়ি বিবিধর হাসপাতাল, নাহলে ২২কিমি দূরে আমতা গ্রামীণ হাসপাতালে। ফলে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নাকাল হবার সম্ভাবনা!

প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উদয়নারায়ণপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে এক রোগীর মৃত্যুর পর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর থেকে রোগী ও কর্মীদের পাশাপাশি এলাকার মানুষদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ায়। তারপর চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মী সহ মৃতের পরিবার সহ মোট ৫৪জনের লালারস সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রত্যেকের হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মোট ৩জন সন্দেহভাজন কে পাঠানো হয়েছে উলুবেড়িয়া ইএসআই হাসপাতালে। হাসপাতালের একজন আয়া, একজন মেডিকেল রিপ্রেজেনটেটিভ এবং একজন মৃতের প্রতিবেশী। এরপরই বিজ্ঞপ্তি দিয়ে উদয়নারায়ণপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতাল ১৪দিনের জন্য পুরোপুরি সিল করে দেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। 

এলাকার মানুষদের অভিযোগ, হাসপাতাল বন্ধ করে দেওয়া হল। উদয়নারায়ণপুর বিধানসভা কেন্দ্রের ১৬২টি গ্রামের রোগীরা কোথায় চিকিৎসা পাবেন তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ঘোর অনিশ্চয়তা। অধিকাংশ নার্সিংহোম ও ডাক্তারের চেম্বারও বন্ধ। হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাদেরও পাড়ায় ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না বা একঘরে করে রাখা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে। একের পর এক এলাকা ঘিরে দেওয়া হয়েছে। সিতাপুরের সঙ্গে কুরচি ভীমতলার সংযোগকারী রাস্তাটি ঘিরে দেওয়ায় রাজনৈতিক সংঘর্ষ ঘটে এমনটাই স্থানীয়দের অভিযোগ।

উদয়নারায়ণপুর থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এলাকার মানুষজন লকডাউন মেনে চলছে। ১৪দিনের জন্য হাসপাতাল সিল করে দেওয়া হয়েছে। তিন জনকে পাঠানো হয়েছে উলুবেড়িয়া ইএসআই হাসপাতালে। এলাকায় চলছে পুলিশের টহলদারি। ওষুধের দোকান ছাড়া সমস্ত দোকান বন্ধ রয়েছে। ওই রোগীর চিকিৎসা ও অন্যান্য পরিষেবা দিতে গিয়ে তাঁদের সংস্পর্শে যারা এসেছেন তাঁদের হোম কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে। জীবাণুনাশক স্প্রে করে হাসপাতাল জীবাণুমুক্ত করার কাজ শুরু হয়েছে।

No comments