Breaking News

করোনা হয়েছে গুজব ছড়াতেই, আতঙ্কে আত্মহত্যা যুবকের

নিউজ অনলাইন: করোনা হয়েছে ভুয়ো গুজব ছড়ানোয় আতঙ্কে আত্মহত্যা করল যুবক। মৃত যুবকের নাম রাকেশ দাস, বয়স ২৬ বছর। পেশায় আইসক্রিম ব্যবসায়ী। রবিবার বিকালে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা থানার অন্তর্গত কেমিয়া এলাকায়। 
পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে,  রাকেশ কর্মসূত্রে কলকাতায়  যাতায়াত করত। কাজ ঠিক মত না হওয়ায় ১৪ দিন আগে  কলকাতা থেকে ফিরে আসে। তারপর থেকে অসুস্থ হয়ে পড়ে সে।  সেখান থেকে পাড়ায় রটে যায় রাকেশ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এমত অবস্থায় তার মা কেও ছেলের সাথে দেখা করতে দিচ্ছিলো না পাড়ার লোকজন। এমন কি তাকে বাড়ির বাইরে যেতে দেওয়া হত না বলে পরিবারের অভিযোগ।  ছেলের খাবার নিয়ে পাড়ার রাস্তা দিয়ে হাটতে বাধা দেওয়া হত বলে জানান রাকেশের মা।
   
 কিন্তু চাঁদপাড়া হাসপাতালে তাকে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসক তার পরীক্ষা করে করোনার কোনো লক্ষন খুজে পান নি। পরিবারের দাবি ছেলেটি অনেক দিন থেকেই ব্রংকাইটিস এ ভুগছিলো। করোনা আক্রান্ত রটে যাবার পর পাড়ার আশা কর্মীরা বাড়িতে এসে রিপোর্ট পরীক্ষা করে দেখে করোনার কথা নস্যাৎ করে দেন। তাতেও এলাকায় গুজব কমেনি। গত কাল বিকেলে রাকেশ নিজের ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। তার পরিবারের দাবি "পাড়ার লোকেদের  করোনার মিথ্যা অভিযোগের জন্যই আত্মগ্লানিতে তাদের ছেলে আত্মহত্যা করেছে।" 
 গ্রামবাসী দের এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তারাও এই রটনার কথা স্বীকার করে নেন।  
 গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্যরাও এই ভুয়ো রটনার কথা স্বীকার করে নিয়েছে।  তিনি আরও বলেন শোনা মাত্রই সকলকে সচেতন করেছেন এ বিষয়ে এবং গ্রামের আশা কর্মীদের রাকেশের বাড়ীতে পাঠিয়েছিলাম। গ্রাম বাসীর কাছে আবেদন করেছিলাম কোন ধারনের গুজব না ছড়াতে। পরে শুনলাম ছেলেটি আত্মহত্যা করেছে।

No comments