Breaking News

বুধবার সকাল থেকে উত্তাল সমুদ্র, বড় বড় ঢেউ আছড়ে পড়ল দিঘার রাস্তায়

প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, নিউজ অনলাইন: 
নিম্নচাপের কারনে মঙ্গলবারের পর বুধবার সকাল থেকেও  পূর্ব মেদিনীপুর  জেলা জুড়ে ঘন অন্ধকারে ডাকা পড়েছে ।মঙ্গলবারের মত জেলা জুড়ে সর্বত্র মাঝে মধ্যেই বৃষ্টি  হয়নি।তবে প্রবল  বাতাস থাকার কারনে দিঘায় সমুদ্র উত্তাল ছিলো  ।

সোমবার থেকেই   আবহাওয়া দপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আগামী ৪৮ ঘন্টা নিম্নচাপের কারনে কলকাতার পাশাপাশি দক্ষিণ বঙ্গের জেলাগুলিতে ভারি থেকে অতিভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তরের সেই নির্দেশিকা পাওয়ার পরে     যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে পূর্ব মেদিনীপুর  জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মৎস্যজীবীদের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। যাতে মৎস্যজীবীরা মাঝ সমুদ্রে মাছ ধরতে না যায়।আর  যারা গিয়েছে তারা যেন মাছ সমুদ্র থেকে মোহনায় ফিরে আসে।

আবহাওয়া দপ্তরের সতর্ক থাকে সত্য প্রমাণ করে নিম্নাচাপের কারনে সকাল থেকে বৃষ্টি আর পূর্নিমার জোয়ারে সমুদ্রের জল বেড়ে গিয়েছে। সমুদ্রতটে যেন পর্যটকরা না যায় এবং সমুদ্র স্নানে যেন না নামে সেদিকে কড়া নজদারিতে রয়েছে পুলিশ প্রশাসন। পাশাপাশি কাঁথি মহকুমা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সৈকত এলাকা জুড়ে চলছে মাইকিং। তৈরি রয়েছে লুনিয়ারাও। "

দিঘার মোহনা ফিস এন্ড ফিস ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন  এর  পক্ষে   সম্পাদক শ্যামসুন্দর দাস বলেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদের জানিয়েছে আমরা ওই বার্তা ট্রলার গুলিকে ওয়ালেসের মাধ্যমে জানিয়েছি। সোমবার রাতে অনেক ট্রলার ফিরে এসেছে। বাকি কিছু ট্রলার ছিলো,তারাও রাতে ফিরে এসেছে"।
"
এই বিষয়ে রামনগরের বিধায়ক তথা দিঘা উন্নয়ন পর্ষদের সহ সভাপতি বলেন, মহকুমা প্রশাসন আগেই সতর্ক করেছে। মাইকের মাধ্যমে সমগ্র উপকূল জুড়ে প্রচার চলছে। আমরা জন প্রতিনিধিরা ও জেলা প্রশাসন সতর্ক আছি।"
অপরদিকে স্থানীয়দের থেমে জানা গেছে মঙ্গলবার রাত থেকেই বাতাসের কারনে  উত্তাল সমুদ্র  ।বড় বড় ঢেউয়ের কারনে   সমুদ্রের জল  রাস্তায় এসে  পড়ে ।এই সময় যাতে নন দুর্ঘটনা না ঘটে তার জন্যে পুলিশ ও নুলিয়ারা স্নান ঘাট  গুলিতে কড়া নজরদারি চালিয়েছে ।

No comments