Breaking News

বালুরঘাটের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে বিবাহ বিষয়ক প্রতারনার অভিযোগ তুললেন তার স্ত্রী

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন:  করোনা আবহে যখন সাদা পিপিই কীট পরিহীত চিকিৎসকদের লড়াই দেখে সারা দেশের মানুষ যখন তাদের সাথে মন্দিরে অধিষ্ঠিত ভগবানের সাথে তুলনা টানছেন। ঠিক তখন বালুরঘাটে এক মহিলা  বালুরঘাট হাসপাতালের শল্য চিকিৎসক ডাক্তার হাসান সুবিদ এর নামে বিবাহ বিচ্ছেদ প্রতারণার অভিযোগ আনায় চিকিৎসকদের ভাবমুর্তির সুনামের প্রতি অবিচার করলেন ওই চিকিৎসক  । যা নিয়ে জেলা জুড়ে গুঞ্জন দেখা দিয়েছে। 



আজ বালুরঘাটে মুর্শিদাবাদ জেলার রেজিনগর শক্তিপুর এলাকার বাসিন্দা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই মহিলা জানান গত 21 জানুয়ারি 2018 সালে একটি বিবাহ বন্ধনের ইন্টার নেটে পরিচয় হয় এবং তার সাথে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মির্জা মহল্লার বাসিন্দা  ডাক্তার হাসান সুবিদ এর বিয়ে হয় বহরমপুরের একটি লজে। তারপর থেকে ওই মহিলা তার শ্বশুর বাড়িতেই থাকতেন বলে জানান। যদিও ডাক্তার হাসান সুবিদ কর্মসূত্রে বালুরঘাটে থাকতেন একা। ওই মহিলার আরও অভিযোগ ডাক্তার হাসান সুবিধের এর আগেও বিয়ে হয়েছে এবং তার দুটি বাচ্চাও রয়েছে। সেই ঘটনা গোপন করেই হাসান সুবিদ ওই মহিলার সাথে বিবাহ করেন বলে ওই মহিলার অভিযোগ । ওই মহিলা ঘটনাটি জানার পরেও ব্যাপারটি মেনে নিয়েছিলেন বলে মহিলা জানান। ওই মহিলা আরো বলেন ডাক্তার হাসান সুবিদ কে তিনি ডাক্তারবাবুর কর্মস্থল বালুরঘাটে নিয়ে যেতে বললে তিনি বারবার করে সে অনুরোধ এড়িয়ে যেতেন। মহিলা অভিযোগ করেন এর মাঝে হাসান সুবিদ এর আগে জোরপূর্বক তার একটি গর্ভের সন্তান নষ্ট করেছেন। পুনরায় সেই মহিলা গর্ভবতী হয়ে পড়লে আবারও হাসান সুবিদ সেই মহিলাকে জোরপূর্বক তার গর্ভের সন্তান নষ্ট করতে বাধ্য করেন বলে অভিযোগ করেছেন ওই মহিলা। ওই মহিলা তার গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসান সুবিদ সেই মহিলাকে তার বাপের বাড়ি মুর্শিদাবাদের শক্তিপুর এলাকায় রেখে আসেন বলে জানান ওই মহিলা। এরপরে ওই মহিলা অভিযোগ করেন যে ইতিপূর্বে তিন তালাক নিষিদ্ধ হলেও হাসান ছবির তাকে সাদা কাগজে লিখে কিছুদিন আগে তালাক দেন। সেই বিষয়ে ওই মহিলা বালুরঘাটে এসে ডাক্তার হাসান শহীদের কৈফত চাইতে গেলে ডাক্তার হাসান সুবিদ তাকে নির্যাতন করেন বলেও অভিযোগ। এরপর ওই মহিলা বালুরঘাট মহিলা থানায় একটি জেনারেল ডায়েরি করেন। পাশাপাশি ওই মহিলার বাড়ির লোক জানিয়েছেন যাতে ডাক্তার হাসান সুবি কোনভাবেই যাতে আইন কে প্রভাবিত না করতে পারে সেই কারণে তারা মুর্শিদাবাদে গিয়ে সম্পন্ন আইন মোতাবেক ওই ডাক্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করবেন। এই করোনা সংকটের মাঝে যখন সাধারণ মানুষ স্বাস্থ্যকর্মী ডাক্তারদের ভগবানের আসনে বসিয়েছেন ঠিক তখনই একজন স্বনামধন্য ডাক্তারের বিরুদ্ধে এইরূপ গুরুতর অভিযোগ ওঠায় উঠেছে প্রশ্ন। পাশাপাশি ওই মহিলার অভিযোগ সম্পর্কে পুলিশ প্রশাসন কি ব্যবস্থা নেন সেটাই এখন দেখার। এই বিষয়ে ডাক্তার হাসান সুবিদ এর বক্তব্য জানার জন্য আমরা বারবার ডাক্তার হাসান সুবিদ এর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়ে ওঠেনি।

No comments