Breaking News

আত্রেয়ী নদীর জল ঢুকে পড়ল বালুরঘাটের লোকালয়ে

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন: এ যেন মরার উপর খাড়ার ঘা,  এমনিতেই করোনার আতংকে জনজীবন বিদ্ধস্ত। তার উপর উত্তরের উপরের দিকে টানা বৃষ্টিতে বন্যার ভ্রুকুটি মাথার উপর।২০১৭ বন্যার স্মৃতি উস্কে দিয়ে আবার ও আত্রেয়ী নদীর জল ঢুকে পড়ল বালুরঘাটের লোকালয়ে। বালুরঘাটের বেশ কয়েকটি এলাকায় নদীর জল ঢুকে পড়ার পর এবার  আত্রেয়ীর জলে নতুন করে জলমগ্ন হলো বালুরঘাট শহরের বেলাইন এলাকা। সঙ্গে নদীর জল রাত  থেকে একই ভাবে বেড়ে চলায় চরম আতংকের মধ্যে রয়েছেন বাসিন্দারা। ইতিমধ্যেই মানুষজন জিনিসপত্র ও পরিবার নিয়ে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে শুরু করেছেন।সেখানে প্রায় একশটি পরিবারের পাঁচ শতাধিক বাসিন্দারা সমস্যায় পড়েছেন। বহু বাড়ির উঠোনে এবং ঘরের ভেতরে জল ঢুকে গিয়েছে। গ্রামের একমাত্র রাস্তা জলমগ্ন হয়ে পড়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিপাকে পড়েছে বেলাইন এলাকার পরিবারগুলি।

এদিকে আত্রেয়ী সহ জেলার অনান্য নদীর জল ক্রমশই বেড়ে যাওয়ায় প্রবল বন্যার আশঙ্কায় রয়েছেন জেলার বাসিন্দারা।  ২০১৭ সালেও দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাট গঙ্গারামপুর সহ জেলার অধিকাংশ এলাকার মানুষকে বন্যার কবলে পড়তে হয়েছিল। বহু বাড়ি ভেঙে পড়ার পাশাপাশি মৃত্যুও হয়েছিল বেশ কয়েকজনের। স্বাভাবিক ভাবেই এবারেও অতিবর্ষণের জেরে আত্রেয়ী নদীর জল বেড়ে চলায় আতংকের মধ্যে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।
যদিও সেচ দফতর  সুত্রে জানা গেছে যে আত্রেয়ী সহ জেলার সমস্ত নদীর জলই বেড়ে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত  কয়েক দিন সপ্তাহ আগে তপনের রামচন্দ্র পুর এলাকার পুর্নভবা নদীর একটি বাধের কিছুটা অংশ টানা বৃষ্টি ও জলের তোড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও আর অন্যত্র কোথাও বাঁধ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার ঘটনা ঘটেনি।তবে কয়েকটি নিচু এলাকায় অবস্থিত জনবসতিতে জল ঢুকেছে। পাশাপাশি সেচ দপ্তর সুত্রে জানা গেছে যে পরিস্থিতির উপর তাঁরা নজর রেখেছেন।

No comments