Breaking News

নন্দীগ্রামে ফের রেশন বন্টনের বেনিয়মের অভিযোগ তুলে স্থানীয়দের বিক্ষোভ

প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, নিউজ অনলাইন: ১৬ই জুন মঙ্গলবার নন্দীগ্রামের আমদাবাদ ১গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত সুবদী এলাকায় বেশ কিছু  রেশন গ্রাহক তারা অভিযোগ করছেন তাদের রেশন কার্ড থাকা সত্ত্বেও প্রায় বছর দুয়েক ধরে
তারা রেশন পাচ্ছেন না।
এই নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে  জানানো হলেও তা নিয়ে কোনো সুরাহা হয় নি জানান স্থানীয়রা।
সুলেখা মাঝি, লক্ষী সেন, ভানুমান্না এরকম অনেকেই অভিযোগ তুলেন খোদ কর্মাধ্যক্ষ ও রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে।
প্রসঙ্গত তারা বলেন তারা সাইবার ক্যাফে গিয়ে জানতে পারেন তাদের রেশন কার্ড দু'বছর আগে তুলে নেওয়া হয়েছে এই বিষয়ে রেশন ডিলার  কোন সদুত্তর দিতে পারেননি ।
স্থানীয়দের দাবি ওই রেশন সামগ্রী পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ ও রেশন ডিলার প্রকাশ জানা রেশন সামগ্রীগুলো তুলে নিচ্ছেন আমরা জানতে পেরে ঐ রেশন ডিলার ও কর্মাধ্যক্ষের বিরুদ্ধে সরব হয়েছি।
বিজেপি তমলুক সাংগঠনিক সভাপতি প্রলয় পাল বলেন  এই এলাকায় ৮১টা পরিবারের রেশন কার্ড থেকে তাদের রেশন সামগ্রী আত্মসাত করেছে এই রেশন ডিলার ও কর্মাধ্যক্ষ্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন।
এরা নন্দীগ্রামে পরিবর্তনের নামে , গরিব মানুষের কষ্টার্জিত টাকা খাদ্ সামগ্রী  আত্মসাৎ করছে । এই নিয়ে  প্রশাসনিক দপ্তরে অভিযোগ করা সত্ত্বেও সুরাহ হচ্ছে না । এমন হতে থাকলে পরবর্তী দিনে তারা আন্দোলনে নামবেন।

পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সঞ্জয় দিন্দা জানান এটা সম্পূর্ণ মিথ্যে কথা । তবে তিনি এটা স্বীকার করে বলেন হ্যাঁ অনেকেরই রেশন কার্ড ছিলনা গত দু'বছর ধরে । তাদের মধ্যে অনেকেই আমাদের পঞ্চায়েত অফিসে এসে আমাদেরকে জানায় তাই যাতে ওই সকল মানুষগুলো রেশন সামগ্রী পায় দেখবেন । প্রসঙ্গত বলেন অনেকের রেশনকার্ড হয়ে যাওয়ার পরে ও দ্বিতীয়বার ওই নামের তালিকায় ৮১টা পুরনো রেশন কার্ড রয়ে গেছে।
বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এই দুঃসময় যতদিন না পর্যন্ত, ওই ব্যক্তির রেশন কার্ড গুলো পাচ্ছে, । ততদিন  ওদের কে ঐ কার্ডে  রেশন তুলে দেওয়া হোক। সেই মতো তাদেরকেই রেশন সামগ্রী দেওয়া চলছিল।
কার্ড পেয়ে গেলে কার্ড গুলো খাদ্য দপ্তরে ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এই বিষয়ে নন্দীগ্রাম ২ব্লকের   বিডিও  সুরোজিত রায় খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন।




No comments