Breaking News

কুমারগঞ্জে পনের দাবিতে গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ শশুরবাড়ির লোকের বিরুদ্ধে

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন, বালুরঘাট: পণের দাবিতে এক গৃহবধূকে খুন করে দড়িতে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া কুমারগঞ্জ ব্লকের সমজিয়া পঞ্চায়েতের সূবর্ণসইত গ্রামের ঘটনা। পুলিশ জানিয়েছে মৃত গৃহবধুর নাম লাভলী বিবি (২৫)। এদিন শ্বশুরবাড়ি থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে একটি ভ্যানে ত্রিপল মোড়ানো অবস্থায় তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়ি সহ মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে কুমারগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতার পরিবার।
যদিও কুমারগঞ্জ থানার ওসি তাসি থিরিং সেরপা জানিয়েছেন, একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করে পুলিশ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত কোনো অভিযোগ তিনি পাননি।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, প্রায় আট বছর আগে বালুরঘাটের বোল্লা পঞ্চায়েতের চকজুজুর এলাকার বাসিন্দা আজগর সরকার তার বড় মেয়ে লাভলী বিবির বিয়ে দেন সূবর্ণ সইত গ্রামের বাসিন্দা সুজাউর সরকারের সাথে। তিন মেয়ে ও এক ছেলের সংসারেও অত্যন্ত কষ্টে বিয়ের সময় বোন হিসেবে ১০ হাজার টাকা ও তিন ভরি সোনার গহনা দিয়েছিলেন আজগরবাবু। বিয়ের পর কিছুদিন ভালোই চলছিল। কর্মসূত্রে সুজাউর সরকার ভিন রাজ্যে থাকতেন। বর্তমানে তাদের একটি পুত্র সন্তানও রয়েছে। অভিযোগ বিগত ছয় মাস ধরে শ্বশুরবাড়ি থেকে অতিরিক্ত এক লক্ষ টাকা পণের দাবি করে আসছিল সুজাউর। অভিযোগ সেই টাকা দিতে না পারায় পরিবারে অশান্তি চলছিল। রবিবার সকালে শ্বশুরবাড়িতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় মৃতার পরিবার। যদিও পুলিশ পৌঁছানোর আগেই মৃতদেহ সেখান থেকে সরিয়ে ফেলার চেষ্টা হয়। পরে অবশ্য বাড়ি থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে একটি গ্রামে ভ্যানের মধ্যে ত্রিপল জড়ানো অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।মৃতার দাদা মুন্না সরকার জানিয়েছেন, পণের দাবিতে বেশ কিছুদিন ধরে তার বোনের উপর অত্যাচার চলছিল। যা না পেয়ে তাদের বোনকে খুন করে দড়িতে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। এ বিষয়ে পুলিশকে তারা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

No comments