Breaking News

আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তোলার লক্ষে, প্রধানমন্ত্রীর ২০ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ নিয়ে রাজনৈতিক তর্জা তুঙ্গে

কল্যাণ দত্ত, নিউজ অনলাইন: 
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী ১২ই মে মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন। 
তিনি বলেন একবিংশ শতককে ভারতের শতক হিসাবে পরিচিতি দানের জন্য সবচেয়ে জরুরি হলো দেশকে আত্মনির্ভর করে তোলা। 
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে একটি অর্থনৈতিক প্যাকেজ এর কথা ঘোষণা করেন। যেটার মূল্য ২০লক্ষ কোটি টাকা। এবং তিনি বলেন আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তুলতে এই আর্থিক প্যাকেজ প্রয়োজনীয় শক্তি যোগাবে। 
প্রধানমন্ত্রী আরও জানান ২০ লক্ষ কোটি টাকা দেশের জিডিপির মোট ১০ শতাংশ। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, “এই আর্থিক প্যাকেজ ক্ষুদ্র এবং কুটির শিল্পের জন্যে, এই আর্থিক প্যাকেজ দেশের গরীব শ্রমজীবী মানুষের জন্য!” তিনি আরও বলেন “২০২০ সালে ২০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ আত্মনির্ভর ভারত অভিযানকে নতুন গতি দেবে”।

২০লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ নিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলার খন্ডঘোষ ZP -5 এর বিজেপি সভাপতি শম্পা মাথুর জানিয়েছেন   "প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই সংকটের সময় ভারতবাসির পাশে আছেন। উনি বলেছেন (প্রধানমন্ত্রী )লকডাউন এর সময় যারা ছোট্ট ছোট্ট কুঠির শিল্পে নিযুক্ত আছেন তারা প্রত্যেকেই স্টামিনার পিলার। প্রধানমন্ত্রীর দ্বারা ঘোষিত আর্থিক প্যাকেজে যথেষ্ট  উপকৃত হবেন মধ্যবিত্ত এবং গরিব মানুষেরা। পরিযায়ী শ্রমিকরাও বাইরে থেকে এসে এই প্যাকেজ এর মাধ্যমে উন্নতি করতে পারবে "। 

বর্ধমান জেলা পরিষদের সদস্য বিশ্বনাথ রায় প্রধানমন্ত্রী দ্বারা ঘোষিত প্যাকেজ এর উদ্দেশ্যে বলেন "আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী কখন কী বলেন সেইসব নিয়ে কমেন্ট করতে ভয় লাগে। কারণ তিনি ঘোষণা করেন বহু প্যাকেজ কিন্তু বাস্তবে তা রূপ পায়না। তিনি ভারতবর্ষের মানুষকে বলেছিলেন আমাকে ক্ষমতায় আনুন আমি প্রত্যেকের একাউন্ট এ ১৫লক্ষ করে টাকা দেবো, কালো টাকা ফিরিয়ে দেবো, গরিব মানুষদের সুযোগ সুবিধা দেবো, কিন্তু সেগুলোর একটাও কার্যকরী আজ অবধি হয়নি। সেইরকমই এই আর্থিক প্যাকেজ গরিব, অসহায় মানুষদের কোনো কাজে আসবে না "।  

অপরদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলার কৈয়র গ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি শ্যামল দত্ত বলেছেন,
 "প্রধানমন্ত্রী যে ২০লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজএর কথা  ঘোষণা করেছেন সেটা আদৌ বাস্তবে কাজে আসবে কিনা সেই বিষয়ে সন্দেহ আছে "। 

পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহমুদ খান বলেছেন "প্রধানমন্ত্রীর ২০লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ যদি সত্যি বাস্তবায়িত হয় খুশি হবো "।

No comments

গঙ্গারামপুরে প্রাক্তন বাম পঞ্চায়েত প্রধান সহ একাধিক বামফ্রন্ট কর্মী যোগ দিল বিজেপিতে

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন, বালুরঘাট: আগামী বিধানসভা ভোটে  শাসক দল তৃনমুলকে পরাস্ত করতে ও বিজেপি কে রাজ্যে শক্তিশালী করার...