Breaking News

ফের আশার আলো দেখালো পাঁশকুড়ার বড়োমা করোনা হাসপাতাল

প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, নিউজ অনলাইন: আবারও আশার আলো দেখালো পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়া বড়োমা করোনা হাসপাতাল।জেলায় যখন ক্রমশ বাড়ছিলো করোনা রোগীর আক্রান্তের সংখ্যা,সেইসময় প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় পাঁশকুড়ার অন্তর্গত মেছোগ্রামের বড়োমা হাসপাতালটিকে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা করা হয়। তখন নানাদিকথেকে প্রশ্ন উঠেছিলো কোলকাতার চিকিৎসার থেকে কি গ্রামের এই হাসপাতালে আদৌ ভালো চিকিৎসা ব্যবস্থা রোগীরা পাবেন! তবে সময়ই সব প্রশ্নচিহ্নের উত্তর দিয়েদিলো।এখন শুধু জেলাবাসীর কাছে নয়,বলাযেতেপারে রাজ্যের কাছেও সেরা হাসপাতালের তালিকায় বলাযেতেই পারে পাঁশকুড়া বরোমা করোনা হাসপাতালটি।বর্তমানে শুধু পূর্ব মেদিনীপুরের রোগী নয় পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের করোনা রোগীরও চিকিৎসা চলেছে এই হাসপাতালে।ভাালোো খবর এটাই বর্তমানে তিনটি পর্যায়ে চিকিৎসা করতে আসা রোগীদের বেশিরভাগ রোগীদেরকেই ছেড়ে দেওয়া হলো।রবিবার বিকেলে মোট ৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগীদের সফল চিকিৎসার পর আজ ছেড়ে দেওয়া হলো।জানা গেছে ৭ জনের মধ্যে ৬ জনই পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুরের আর পি এফ কর্মী এবং ১ জনের বাড়ি ঝাড়গ্রাম এলাকায়।তবে বাকি দুটি পর্যায়ে প্রথমে ১৪ জন এবং পরে ৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগীকে সফল চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।এদের মধ্যে বেশীরভাগই পূর্ব মেদিনীপুরের হলদিয়া ও তমলুকের বল্লুক এলাকার।তবে সূত্রমারফৎ জানাগেছে এই মুহুর্তে আর মাত্র ২ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে।তারাও সুস্থের পথে।কয়েকদিনের মধ্যে রিপোর্ট এলেই মুক্তি দেওয়া হবে হাসপাতাল থেকে।সবমিলিয়ে একদিকে যেমন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রীতিমতো খুশি করোনা যুদ্ধে সফলতা আসায় পাশাপাশি জেলাবাসীও আশায় বুক বাঁধছে করোনা থেকে মুক্তি পাবেই জেলার মানুষ।

No comments