Breaking News

গোবরডাঙ্গা থানার লক্ষীপুর গ্রামে স্বামীজি সেবা সংঘের পরিচালনায় আজ প্রায় পাঁচশো দুঃস্থ গ্রামবাসীর হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দিলেন নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের সন্ন্যাসীরা

সৌভিক সরকার, নিউজ অনলাইন: উত্তর ২৪ পরগনার গোবরডাঙ্গা থানার অন্তর্গত লক্ষীপুর গ্রামে স্বামীজি সেবা সংঘের পরিচালনায় আজ প্রায় পাঁচশ দুঃস্থ গ্রামবাসীর হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দিলেন নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের সন্ন্যাসীরা।
বেরগুম ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের লক্ষীপুর সহ পারশ্ববর্তী নিমতলা, কুচুলিয়া, নাকপুল গ্রাম থেকে দুঃস্থ মানুষেরা ত্রাণ নিতে আসেন। ত্রাণ পেয়ে  স্বভাবতই খুশি হন এলাকার মানুষ। 
দেশ জুড়ে লক ডাউন চলার কারণে সাধারণ মানুষের অবস্থা খুবই শোচনীয়, এই মুহূর্তে স্বামীজি সেবা সংঘের এই ত্রাণ বন্টন এলাকায় ব্যাপক সাড়া ফেলে দেয়। ত্রাণ পেয়ে খুশি হয়ে জনৈক গ্রাম বাসি বলেন ,"এই অসময়ে ত্রাণ প্যায়ে আমরা খুব খুশি, আমাদের খুব উপকার হলো।আমরা চাই সংঘের থেকে এরকম কাজ আরো হোক।"
বিশাল এলাকায় প্রয়োজনের তুলনায় পর্যাপ্ত ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগও  উঠেছে। সূত্র মারফত জানা যায় ত্রাণ পেয়ে খালি হতেও অনেকে ফিরে গেছেন। স্বামীজি সেবা সংঘ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সহকারী প্রধান শিক্ষক শ্রী সূর্য কুমার ঘোষ বলেন " স্বামীজি সেবা সংঘ সারা বছর বিভিন্ন সমাজ সেবামূলক কাজ করে, এই ত্রাণ বন্টন তারই একটি অঙ্গ। আর এই সেবার মন্ত্র দান করেছেন সংঘের পুজ্জ্পাদ হরেন্দ্রনাথ ব্রহ্মচারী। তার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই আমরা এই সেবা কাজে নিযুক্ত হয়েছি।"
ত্রাণ বিলির সময়ে সমজিক দূরত্বের বিষয়টা মাথায় রাখেন  উদক্তারা। চুন দিয়ে নির্দিষ্ট দূরত্বের দাগ কেটে দেওয়া হয়। সংঘের সম্পাদক বিমল কুমার ব্যানার্জী বলেন" এটা আমাদের দ্বিতীয় দফার ত্রাণ বন্টন, ভবিষ্যতে যদি আরো ত্রাণ বিলি করা যায় আমরা সেই বিষয়টা চিন্তা করছি। আর যারা আজকে ত্রাণ পেলেন না তাদের বিষয়টাও আমরা চিন্তা ভাবনা করে দেখছি।

No comments