নিউজ অনলাইন: শিক্ষক দিবসের দিনে হুগলির রিষরার এক লজ্জাজনক ঘটনা সকলের সামনে তুলে ধরল বাংলার এক প্রতিভাবান সাঁতারু, নেহা দাস। তার অভিযোগ তার সাঁতারের শিক্ষক সুরজিৎ গাঙ্গুলী, যার কাছে সে বহু দিন ধরে সাঁতারের কোচিং নিচ্ছে, এবং জাতীয় এবং রাজ্য স্তরে প্রচুর পদক পেয়েছে, সেই শিক্ষক তাকে দিনের পর দিন যৌন হেনস্থা করেছেন। এবং এই বলে ভয় দেখাতেন,"কাউকে কিছু জানালে তোর ক্যারিয়ার নষ্ট হয়ে যাবে"।
কিন্তু ধৈর্যের বাঁধ একদিন ভাঙলো বছর ১৫র এই সাঁতারুর। সে বুদ্ধি করে লুকিয়ে একটি ভিডিও তুলে রেখেছিল, যেখানে তার কোচ সুরজিৎ গাঙ্গুলিকে দেখা যাচ্ছে, সে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এমনকি গোপনাঙ্গে হাত দিচ্ছেন। ঘটনাচক্রে এই ঘটনা হয়েছে গোয়াতে। কারণ সুরজিৎ গাঙ্গুলী বেশ কিছু দিন আগে গোয়াতে চলে গিয়েছিল। সে সেখানে গিয়েও সাঁতার শেখাতেন। এরপর কিছুদিন পরে রিষরার নেহাকেও সে সেখানে ডেকে নিয়েছিল। সেখানেই চলছিল নেহার প্রশিক্ষণ। কিন্তু সেখানে বিভিন্ন সময় সে নেহার উপর যৌন হেনস্থা করত। কিন্তু একদিন নেহা আর না সহ্য করতে পেরে সব ঘটনা তার বাবা মাকে জানায়। এরপর নেহার বাবা মা মেয়েকে নিয়ে ভয়ে গোয়া থেকে চলে আসে। বাড়ি ফিরে এসে যখন রিষরা  থানায় অভিযোগ জানাতে যায়, প্রথমে পুলিশ অভিযোগ নিতে চায়নি। তাদেরকে গোয়া গিয়ে অভিযোগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়। কিন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় যখন নেহা পুরো বিসয়টি পোস্ট করে, এরপর সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। তারপর রিষরা থানা অভিযোগ গ্রহণ করে তদন্ত শুরু করেছে।

0 comments:

Post a Comment

আয়লার স্মৃতিকে উসকে ধেয়ে আসছে "বুলবুল"

ঋত্বিক দাস, দক্ষিণ ২৪ পরগনা:-ক্রমশ শক্তি সঞ্চয় করেছে প্রচণ্ড গতিতে ‘বুলবুল'। গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী এলাকায় প্রায় ৯০কিলোম...

 
Top