নিউজ অনলাইন : স্ত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কের জেরে প্রতিবেশী এক যুবককে খুন করার অভিযোগ উঠল এক দম্পতির বিরুদ্ধে।প্রতিবেশী যুবককে বস্তার ভিতরে হাত পা বেধে তাতে ইট বেধে স্থানীয় পুকুরে ফেলে দেয়।এর ফলেই মৃত্যু হয়েছে ঐ প্রতিবেশী যুবকের।রবিবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে শাসন থানার পাকদহ গ্রামে। পুলিশ অভিযুক্ত দম্পতিকে গ্রেপ্তার করেছে।পুলশ জানিয়েছে মৃত যুবকের নাম মহনুল অালি(২৫)। এই খবর চাওর হতেই স্থানীয় ক্ষুব্দ গ্রামবাসীরা এদিন অভিযুক্ত দম্পতির বাড়িঘর ভাঙচুর করে তাতে অাগুন ধরিয়ে দেয়।   

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে শাসন থানার পাকদহ মাঝেরপাড়া গ্রামেই বাস ইমান আলি এবং তার স্ত্রী রুপা বিবি।পুলিশ জানিয়েছে ইমান আলির স্ত্রী রুপার সাথে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন প্রতিবেশী যুবক মহনুল অালি।বিষয়টি জানার পর থেকেই অশান্তি শুরু হয় মহনুলের সঙ্গে ইমানের।তাকে এই অবৈধ সম্পর্ক থেকে সরে আসার পরামর্শও দেয় ইমান অালি।কিন্তু এতে কোন কাজ না হওয়ায় এদিন মহনুলকে খুন করার চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেন ইমান।এই খুনে সে তার স্ত্রী রুপা বিবিকেও যুক্ত করে।

পুলিশ জানিয়েছে ইমান আলি এবং তার স্ত্রী প্রতিবেশী যুবক মহনুল অালিকে হাত পা বেধে প্রথমে একটা বস্তার ভিতরে ঢুকিয়ে দেয়।এরপর বস্তার সাথে ইট বেধে বস্তা সমেত মহনুল আলিকে পাশের একটি পুকুরের জলে চুবিয়ে দেয়।এর ফলেই মৃত্যু হয়েছে মহনুল আলির। এই খবর জানাজানি হতেই ক্ষুব্দ গ্রামবাসীরা অভিযুক্ত দম্পতির বাড়িতে ভাঙচুর চালায়।শেষে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।গ্রামবাসীরা ইমান আলির ঘরের জিনিস  পত্র লুটপাট চালায় বলেও অভিযোগ। এর পরেই ইমান আলি এবং তার স্ত্রী রুপা বিবি দুই জনেই শাসন থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেন। শাসন থানার পুলিশ জানিয়েছে অভিযুক্ত দম্পতি মহনুল আলিকে খুন করার কথা স্বীকার করে নেয়।এরপরেই ইমান আলি এবং তার স্ত্রী রুপা বিবিকে গ্রেপ্তার করেছে।

0 comments:

Post a Comment

হালিশহরের ভাগাড় থেকে উদ্ধার মৃতদেহ

নিজস্ব প্রতিনিধি: আজ হালিশহর এর 8 নম্বর ওয়ার্ড এর ভাগাড় থেকে উদ্ধার হল পচা-গলা মৃতদেহ। বীজপুর থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্...

 
Top