Breaking News

রেশন নিয়ে কেন্দ্র এবং রাজ্য উভয়ই দুর্নীতি করছে এই অভিযোগে জেলা খাদ্য আধিকারিকের কাছে ডেপুটেশন দিল দক্ষিন দিনাজপুর জেলা কংগ্রেস

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, নিউজ অনলাইন, বালুরঘাট: একদিকে যখন লকডাউনের জেরে সাধারন মানুষের নাভিশ্বাস ওঠার দায়। অন্যদিকে তখন  রেশন নিয়ে কি কেন্দ্রীয় সরকার কি রাজ্যের শাসক দল নোংরা রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ তুলে জেলা খাদ্য আধিকারিকের নিকট দাবি দাওয়া পেশ করলো দক্ষিন দিনাজপুর জেলা কংগ্রেস।শুধু তাই ই নয় কি কারনে জেলার সমগ্র রেশন দোকানের সামনে রাজ্যের শাসকদলের নেতা নেত্রীর ছবি দিয়ে ফ্লেক্স টাংগানো হয়েছে তার পাশাপাশি জেলার সমগ্র রেশন বিলি নিয়ে অব্যবস্থ্যা নিয়েও আজ কংগ্রেসের পক্ষ থেকে খাদ্য নিয়ামকের নিকট  জবাবদিহি  চাওয়া হবে বলে ও জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জানানো  হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে জেলার সমগ্র রেশন বিলির অব্যবস্থ্যা নিয়ে  দক্ষিন দিনাজপুর  জেলা কংগ্রেসের সভাপতি গোপাল দেবের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন কংগ্রেসের কর্মী সমর্থক জেলা প্রশাসনিক ভবনে অবস্থিত খাদ্য ভবনে তাদের দাবি দাওয়া পেশ করতে এলে প্রশাসনিক দপ্তরের  প্রধান প্রবেশ পথে পুলিশ তাদের আটকায়।  এই নিয়ে  উত্তপ্ত হয়ে ওঠে  প্রশাসনিক ভবনের প্রবেশ পথ।বেশ কিছুক্ষন পুলিশের সাথে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়তে দেখা যায় জেলা কংগ্রেসের সভাপতি সহ অনান্য নেতৃত্বকে।পরে পুলিশের উচ্চপদস্থ অফিসারের হস্তক্ষেপে ও জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে প্রশাসনিক ভবন চত্বরে কোন স্লোগান দেওয়া হবেনা ও মাত্র  দশজনের প্রতিনিধি দল নিয়ে জেলা খাদ্য নিয়ামকের সাথে দেখা করার ব্যাপারে আশ্বাস দিলে পুলিশ কংগ্রেস দলের নেতা কর্মীদের ভেতরে ঢোকার অনুমতি দেয়। যদিও পুলিশের পক্ষ থেকে দশ জনের পরিবর্তে মাত্র ছয় জনের প্রতিনিধি দল ঢোকার ব্যাপারে জোরাজুড়ি করলেও কংগ্রেস নেতৃত্ব তাদের দশজনের প্রতিনিধি দলের দাবিতে অনড় থাকায়  শেষ পর্যন্ত  তা পুলিশ মেনে নিতে বাধ্য হয়।

জেলা কংগ্রেসের সভাপতি গোপাল দেব অভিযোগ জানিয়ে বলেন জেলার মানুষ কেন খাদ‍্য পাচ্ছে না। রেশন বন্টন রাজ্য সরকার ঠিকঠাক করছে না। প্রচুর মানুষ আছেন যাদের ডিজিটাল রেশন কার্ড নেই। রাজ্য সরকার তাদের তালিকা প্রকাশ করছে না। স্বাভাবিক ভাবেই সাধারণ মানুষকে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। অবিলম্বে আমাদের জেলায় সেই তালিকা প্রকাশ করে রেশন বন্টন করা হোক।”পাশাপাশি তিনি  কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে বলেন কেন্দ্র বলছে তারা চাল ডাল তেল রাজ্যের মানুষের জন্য পাঠিয়েছেন। অথচ রাজ্যের মানুষ শুধু মাত্র চাল আর ন্যনতম আটা ছাড়া আর কিছু পাচ্ছেনা। তাহলে তেল ডাল গেল কোথায় সেনিয়ে  কেন্দ্র  কোন এক অজানা কারনে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে  কোন পদক্ষেপ গ্রহন করছে না বলে তিনি অভিযোগ জানান।একইসঙ্গে তিনি  গরিবের খাবার নিয়ে এই ঘৃণ্য রাজনীতি বন্ধ করার ডাক দিয়েছেন।

No comments