Breaking News

কেন্দ্রের বরাদ্দ চাল এখনও জনসাধারণের মধ্যে বিলি করা হচ্ছেনা বলে অভিযোগ তুললেন বালুরঘাট লোকসভার সাংসদ ডঃ সুকান্ত মজুমদার

শিব শঙ্কর চ্যাটার্জী, নিউজ অনলাইন, বালুরঘাট:  কেন্দ্রের বরাদ্দ চাল এখনও জনসাধারণের মধ্যে বিলি করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুললেন বালুরঘাট লোকসভার সাংসদ ডঃ সুকান্ত মজুমদার।পাশাপাশি গরিব কল্যান অন্ন যোজনায় রাজ্যবাসী বঞ্চিত কেন? রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়ে জানতে চাইলেন বালুরঘাট লোকসভার সাংসদ ডঃ সুকান্ত মজুমদার মহাশয়। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীকেও বিষয়টি অবগত করানো হয়।
এদিকে গতকালকেই মুখ্যমন্ত্রী রেশনে খাদ্য সামগ্রী দেওয়া নিয়ে বেশ কিছু অভিযোগ পেয়েই খোদ খাদ্য সচিবকেই সরিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি বিডিও বা তার প্রতিনিধি বা থানার আই সি বা তার প্রতিনিধির উপস্থিতিতে রেশন বিলি করবার কথা জানিয়েছেন। এখন দেখার কবে থেকে এই নয়া নির্দেশিকা জেলায় কার্যকর হয়ে জেলার রেশন গ্রহীতারা তাদের নায্য প্রাপ্য মত খাদ্য সামগ্রী ও কেরসিন তেল পান।

অপরদিকে বালুরঘাটের  সাংসদ সুকান্ত মজুমদার অভিযোগ করেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে ইতিমধ্যে এফসিআইয়ের মাধ্যমে অতিরিক্ত চাল পাঠানো হয়েছে। রাজ্য সরকারের তরফে সেই চাল নিয়ে র‍্যাশন ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে জনসাধারণের মধ্যে বিলি করার কথা। সে বিষয়ে কেন্দ্রের জারি করা নির্দেশিকার কপিও পেয়েছি আমরা। কিন্তু রাজ্য সরকার এখনও ওই চাল বিলির ব্যবস্থা করেনি। কেন করছে না, তাও বুঝতে পারছি না।’

তিনি বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আমার আবেদন যে এই সময় সংকীর্ণ রাজনীতি না করে, মানুষের মধ্যে যে খাদ্যাভাব রয়েছে, তা মেটাতে কেন্দ্রের পাঠানো এই অতিরিক্ত চাল মানুষের মধ্যে বিলি করার ব্যবস্থা করা হোক।’

জেলা খাদ্য নিয়ামক জয়ন্ত রায় বলেন, ‘এফসিআই গোডাউনে চাল মজুত রয়েছে। রাজ্য সরকার নির্দেশ দিলেই আমরা সেই চাল বিলি করব।’

এদিকে দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জ ব্লকের কয়েকটি রেশন দোকানের বিরুদ্ধে নিয়ম না মানার অভিযোগ উঠেছিল। বৃহস্পতিবার ওই ব্লকের একটি র‍্যাশন দোকানকে সিলও করেছে খাদ্য দপ্তর। এছাড়াও ইতিমধ্যে দুর্নীতির কারবারে জড়িত থাকার দরুন দুই র‍্যাশন ডিলারকে সাসপেন্ড করেছে জেলা প্রশাসন।ওই দুই  দোকানের মজুত মালপত্র তুলে নিয়ে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে দায়িত্বপ্রাপ্ত পার্শ্ববর্তী র‍্যাশন দোকানে।

এরপরই এদিন কুমারগঞ্জ ও গোপালগঞ্জের কয়েকটি র‍্যাশন দোকান পর্যবেক্ষণ করেন সাংসদ ডঃ সুকান্ত মজুমদার। সাধারণ মানুষ ঠিকঠাক সামগ্রী পাচ্ছেন কিনা, সে বিষয়ে র‍্যাশন ডিলারদের সঙ্গে কথা বলেন সাংসদ। পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গেও কথা বলেন তিনি। সাধারণ মানুষ যেন কোনওভাবেই র‍্যাশন থেকে বঞ্চিত না হন ডিলারদের কাছে সেই অনুরোধ করেন সাংসদ। এই সংকট পরিস্থিতিতে সবাইকে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

No comments